নওগাঁয় লকডাউন শিথিল করে জেলায় ১৫টি বিধিনিষেধ আরোপ

নওগাঁয় লকডাউন শিথিল করে জেলায় ১৫টি বিধিনিষেধ আরোপ


মামুন পারভেজ হিরা,নওগাঁ ঃ নওগাঁ পৌরসভা ও নিয়ামতপুরে লকডাউন শিথিল করে নিয়ে জেলা জুড়ে ১৬ জুন পর্যন্ত ১৫টি বিধিনিষেধ আরোপ করেছে জেলা প্রশাসন। বুধবার দুপুরে সার্কিট হাউস মিলনায়তনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান জেলা প্রশাসক মো: হারুন-অর-রশিদ।
এসময় ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন-সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান, শপিংমল ও মার্কেট খোলা রাখা যাবে। তবে চায়ের ষ্টল বন্ধ থাকবে। হোটেল রেস্তোরা শুধু পার্সেলের মাধ্যমে খাবার সরবরাহ করতে পারবে। তবে মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে ব্যত্যয় হলে তাৎক্ষনিক দোকান, মার্কেট ও শপিংমল  বন্ধ করে দেওয়া হবে। জেলার সকল পর্যটন কেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউিনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে। সকল ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক ও ধমর্অয় অনুষ্ঠান, বিবাহ অনুষ্ঠান, জন্মদিন ও পিকনিক পার্টি বন্ধ থাকবে। করোনা আক্রান্ত বাড়ি পুরোপুরি লকডাউন করতে হবে এবং বাড়ির সকল সদস্য লকডাউনে থাকবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে জুম্মার নামাজসহ প্রতি ওয়াক্ত সর্বোচ্চ ২০ জন মুসল্লি অংশগ্রহন করতে পারবে ও অন্যান্য ধর্মীয় উপসানলয়ে সমসংখ্যাক ব্যাক্তি প্রার্থনা বা উপাসনা করতে পাবরে।
এছাড়াও অতি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া সন্ধ্যা ৬টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত বাড়ি থেকে কেউ বের হতে পারবেন না। অর্ধেক যাত্রী নিয়ে গণ পরিবহন চলাচল করতে পারবে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী ও ভারত সীমান্তের সাপ্তাহিক হাটগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে বিধি নিষেধে ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী এই দুই জেলার সাথে সকল যাতায়াতের পথ বন্ধ ও যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে।
প্রেস ব্রিফিংকালে পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া, সিভিল সার্জন ডাঃ এবিএম আবু হানিফ, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক উত্তম কুমার রায়, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মির্জা ইমাম উদ্দীনসহ অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে গত ২ জুন করোনা সংক্রমন বৃদ্ধি পাওয়ায় নওগাঁ পৌরসভা ও নিয়ামতপুর উপজেলাকে ৭ দিনের বিশেষ সর্বাত্বক লকডাউন ঘোষনা করেছে জেলা প্রশাসন।