বেপরোয়া মটরসাইকেল : ঈদের দিন মহাদেবপুরে নিহত এক : আহত ২০

বেপরোয়া মটরসাইকেল : ঈদের দিন মহাদেবপুরে নিহত এক : আহত ২০


কাজী রওশন জাহান, মহাদেবপুর প্রতিনিধি : মটরসাইকেল দূর্ঘটনায় নওগাঁর মহাদেবপুরের আলোচিত যুবক পাভেলের অকাল মৃত্যুর রেশ কাটতে না কাটতে এবার পবিত্র ঈদের দিনে বেপরোয়ারা মটরসাইকেল চালানোয় পৃথক পৃথক দূর্ঘটনায় একজন নিহত ও ২০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে সাত জনকে মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে, তিন জনকে ভর্তি করানো হয়েছে এবং অপর এক জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, ঈদের দিন সকাল ১০টায় উপজেলার রাইগাঁ ইউনিয়নের বেতবহুতি গ্রামের হাজী গিয়াস উদ্দিনের ছেলে দৃষ্টি ও শ্রবন প্রতিবন্ধী মেহেদী হাসান (২৭) নিজ বাড়ি থেকে সাতগ্রাম যাবার পথে নজিপুর-বদলগাছী সড়কের সাতগ্রাম ব্রিজের উপর উঠলে নজিপুরের দিক থেকে আসা তিন জন আরোহীর একটি দ্রুতগামী মটরসাইকেল তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
মাতাজীহাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আব্দুল মতিন জানান, নিহতের পিতার আবেদনের প্রেক্ষিতে তার লাশ ময়না তদন্ত ছাড়াই দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে। এব্যাপারে থানায় কোন মামলা হয়নি।
ঈদের দিন বিকেলে উপজেলার উত্তরগ্রাম ইউনিয়নের শিবরামপুর মোড় নামক স্থানে দূর্ঘটনায় মটরসাইকেলের চালক দোহালী গ্রামের অসিত চন্দ্রের ছেলে বাকেশ কুমার (২৭), আরোহী গণেশপুর গ্রামের সমন্ত কুমার (২৮) ও আনন্দ কুমার (২৫) এবং পথচারী শিবরামপুর গ্রামের মৃত তজির উদ্দিনের স্ত্রী রাবেয়া বেওয়া (৫২) মারাত্মক আহত হন। আনন্দ কুমারকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে, বাকেশ ও রাবেয়া বেওয়াকে মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়েছে এবং সমন্ত কুমারের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। আহত রাবেয়া বেওয়ার মেয়ের পক্ষের নাতনি পারভীন আকতার (১৪) জানায়, তার নানি রাবেয়া বেওয়া তাকে ও তার ছেলের পক্ষের নাতনি মারুফাকে (৭) নিয়ে বেড়াতে যাবার পথে শিবরামপুর মোড়ে পাকা সড়কের উপর তিন জন আরোহীর একটি মটরসাইকেল তার নানিকে চাপা দেয়। এতে তার নানি মারাত্মক আহত হন। 
এদিন সকাল ১০টায় উপজেলার সফাপুর ইউনিয়নের চকগৌরী গ্রামের উমর আলীর ছেলে আক্কাস আলী (৩৫) জিগাতলা বাজারে আসলে একটি দ্রুতগামী মটরসাইকেল তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা তাকে মারাত্মক আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়।
এছাড়া ঈদের দিন পৃথক পৃথক মটরসাইকেল দূর্ঘটনায় আহতদের মধ্যে মহাদেবপুর উপজেলা সদরের ইসরাইল হোসেনের ছেলে মোনায়েম হোসেন (৫০), লিজা আকতার (১৪), রামচরণপুর গ্রামের শাহাদৎ হোসেন (১৫) ও ভীমপুর ইউনিয়নের সরস্বতিপুর গ্রামের সাঈদ হোসেনকে (২০) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।#